সিরাজগঞ্জে পক্ষকালব্যাপী নাট্যোৎসবের পর্দা নামলো

0

সিরাজগঞ্জ: মুজিব শতবর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে সিরাজগঞ্জে আয়োজিত পক্ষকালব্যাপী নাট্যোৎসব শেষ হয়েছে। বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসের প্রভাব কাটিয়ে উৎসাহ ও উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে পর্দা নামলো এই উৎসবের।

শনিবার (২০ মার্চ) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় শহীদ এম মনসুর আলী অডিটোরিয়ামে ‘নাট্যলোক’ প্রযোজিত রূপ সুন্দরী নাটক প্রদর্শনের মধ্য দিয়ে শেষ হয় পক্ষকালব্যাপী উৎসব। নাটকটির রচনায় ছিলেন মাহাবুব আলম ও নির্দেশনায় অনিক সাহা।

এদিনে মঞ্চের দর্শক গ্যালারি কানায় কানায় পূর্ণ হয়। দীর্ঘদিন পরে ইসাবেলা ফাউন্ডেশনের পৃষ্ঠপোষকতায় সিরাজগঞ্জ সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত এই উৎসবে মেতে উঠেছিল সিরাজগঞ্জের সাংস্কৃতিক অঙ্গন। প্রতিদিনই নাট্যকর্মীদের মিলনমেলায় পরিণত হয় শহীদ এম মনসুর আলী অডিটোরিয়াম।

নাটক শেষে উৎসবের সমাপনী ঘোষণা করেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি হেলাল আহম্মেদ। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ গৌরের সঞ্চালনায় সমাপনী অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশনের প্রেসিডিয়াম সদস্য মমিন বাবু, সিরাজগঞ্জের সিনিয়র সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব আসাদ উদ্দিন পবলু, জোটের সাবেক সভাপতি মাহবুব এ খোদা টুটুল, স.ম আলাউদ্দিন, হাফিজুর সামাদ, ইমরান মুরাদসহ জেলার নাট্যজন ব্যক্তিরা।

এর আগে গত ৮ মার্চ সন্ধ্যায় মঙ্গল প্রদীপ প্রজ্জলনের মাধ্যমে পক্ষকালব্যাপী নাট্যোৎসবের উদ্বোধন করেন ইসাবেলা ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব কবির বিন আনোয়ার। উদ্বোধনী দিনে জেলার সবচেয়ে প্রাচীন নাট্য সংগঠন তরুণ সম্প্রদায়ের বাউথনামা নাটকের পঞ্চাশতম প্রদর্শনীর মধ্য দিয়ে শুরু হয় উৎসব। এছাড়াও এ উৎসবে প্রদর্শিত হয় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান রচিত ‘কারাগারের রোজনামচা, কিশোর ক্ষুদিরাম, ছাগতত্তসহ একাধিক জনপ্রিয় নাটক।

সিরাজগঞ্জ সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি হেলাল আহম্মেদ বাংলানিউজকে বলেন, মুজিব শতবর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত পক্ষকালব্যাপী নাট্যেৎসবের সফল সমাপ্তি হলো। একুশে পদকপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা মরহুম সৈয়দা ইসাবেলার নামে গড়ে ওঠা ইসাবেলা ফাউন্ডেশনের পৃষ্ঠপোষকতায় এ উৎসবে প্রতিদিন বিপুল সংখ্যক দর্শকের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

%d bloggers like this: