মায়ের ওষুধ নিতে বেরিয়ে রুশ ট্যাঙ্কের হানায় মৃত্যু ইউক্রেনিয়ান তরুণীর

0

অসুস্থ মায়ের জন্য ওষুধ নিয়ে ফিরছিলেন এক ইউক্রেনিয়ান তরুণী। তাকে উড়িয়ে দিল রাশিয়ান ট্যাঙ্ক। ভ্যালেরিয়া মাকসেটস্কা নামের ওই তরুণী একটি আমেরিকান সাহায্যকারী সংস্থার (ইউএসএআইডি) হয়ে কাজ করতেন।

কিয়েভের কাছে একটি শহরে ট্যাঙ্ক হানায় তার সাথে মৃত্যু হলো গাড়িতে বসে থাকা তার মা ইরিনা এবং গাড়ির চালক ইয়ারোস্লাভের।

রাশিয়ান কনভয়কে জায়গা দিতে রাস্তার একপাশে গাড়ি দাঁড় করিয়েছিলেন ইয়ারোস্লাভ। সেই সময় গুলি চালাতে শুরু করে রাশিয়ান ট্যাঙ্ক।

জানা গেছে, অন্যদের সাহায্য করতে কিয়েভেই থেকে যেতে চেয়েছিলেন ভ্যালেরিয়া। কিন্তু তার মা ইরিনার ওষুধ শেষ হয়ে যাওয়ায় বেরুতে বাধ্য হন। ইউএসএআইডির কর্মকর্তা সামান্থা পাওয়ার তিন জনেরই মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন।

পাওয়ার এও জানান, ভ্যালেরিয়ার ৩২তম জন্মদিন ছিল সামনেই। বিবৃতিতে কর্মকর্তা বলেন, অত্যন্ত দুঃখের সাথে ভ্যালেরিয়া ‘লেরা’ মাকসেটস্কার মৃত্যুসংবাদ জানাচ্ছি। একজন গর্বিত ইউক্রেনিয়ান, ইউএসএআইডির প্রিয় কার্যকারী সহযোগী এবং অসাধারণ ও সহানুভূতিশীল নেত্রী। ভ্যালেরিয়া বন্ধুমহলও তাকে সাহসী বলে জানে।

সূত্র : ডেইলি মেইল

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

%d bloggers like this: