‘গ্রিন ভিসা’ চালু সংযুক্ত আরব আমিরাতে, স্পন্সর ছাড়াই কাজের সুযোগ

0

উপসাগরীয় দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাতে গোল্ডেন ভিসার পর এবার গ্রীন ভিসা চালু হয়েছে। এই ভিসার আওতায় যারা থাকবেন তারা কোম্পানির স্পন্সর ছাড়াই কাজ করতে পারবেন দেশটিতে।

৫ সেপ্টেম্বর গতকাল রবিবার আমিরাত কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, যাদের নতুন গ্রিন ভিসা রয়েছে তারা কোম্পানির স্পন্সরশিপ ছাড়াই কাজ করতে পারবেন। এছাড়া তারা নিজেদের অভিভাবক ও সন্তানদের স্পন্সর হতে পারবেন। তবে এক্ষেত্রে শিশুদের বয়স সর্বোচ্চ ২৫ বছর হতে পারবে।

বিদেশি বাণিজ্যবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী থানি আল-জেউদি বলেন, এই উদ্যোগের মূল টার্গেট হলো গতিশীল অর্থনীতি করা। গ্রিন ভিসার সুযোগ পাবেন উচ্চ দক্ষতা সম্পন্ন ব্যক্তি, বিনিয়োগকারী, বড় ব্যবসায়ী, উদ্যোক্তা এবং মেধাবী শিক্ষার্থী ও স্নাতকোত্তর।

২০১৯ সালে চালু হওয়া গোল্ডেন ভিসার সুযোগ লক্ষাধিক প্রবাসী কাজে লাগিয়েছেন। প্রবাসী ছাড়াও বিভিন্ন দেশের অর্থনীতিবিদ, সামাজিক ও বিনোদন জগতের লোকেরা গোল্ডেন ভিসা গ্রহণ করেছেন।

উচ্চাভিলাষী স্কিমটি ঘোষণা করেছিলেন সংযুক্ত আরব আমিরাতের ভাইস-প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রী এবং দুবাইয়ের শাসক শেখ মহম্মদ বিন রশিদ আল মাকতুম এবং আবু ধাবির ক্রাউন প্রিন্স এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের সশস্ত্র বাহিনী ডেপুটি সুপ্রিম কমান্ডার হাইনেস শেখ মোহাম্মদ বিন জায়েদ আল নাহিয়ান।

জেইউদি বলেন, সবুজ ভিসা কোম্পানীর সাথে যুক্ত নয়।

সাধারণত, লোকেরা চাকরি হারানোর পরে, তাদের ভিসা বাতিল করা হয় এবং তাদের দেশ থেকে বেরিয়ে আসার জন্য ৩০ দিনের অতিরিক্ত সময় থাকে। এটি ৯০-১৮০ দিন পর্যন্ত বাড়ানো হবে।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

%d bloggers like this: